aam aatir vepu (আম আঁটির ভেঁপু )
ফোনে অর্ডার দিতে কল করুন 01700 769631

আম আঁটির ভেঁপু

৳100.00
৳75.00
25 % ছাড়
চড়কের আর বেশি দেরি নাই। বাড়ি বাড়ি চড়কের সন্ন্যাসীরা নাচিতে বাহির হইয়াছে। দুর্গা ও অপু আহার-নিদ্রা ত্যাগ করিয়া সন্ন্যাসীদের পিছনে পিছনে পাড়ায় পাড়ায় ঘুরিয়া বেড়াইল। অন্য গৃহস্থদের বাড়ি হইতে পুরাতন কাপড়, সিধা, পয়সা দেয়_কেউবা ঘড়া দেয়; তাহারা কিছুই দিতে পারে না দুটি চাল ছাড়া। দশ-বারো দিন সন্ন্যাসী নাচনের পর চড়কের পূর্বরাত্রে নীলপূজা আসিল। নীলপূজার দিন বৈকালে একটা ছোট খেজুর গাছে সন্ন্যাসীরা কাঁটা ভাঙে। প্রতি বৎসরই একই খেজুর গাছে কাঁটা ভাঙা হয় না। কাঁটা ভাঙার নাচ হইয়া গেলে সকালে চড়কতলাটাতে চড়ক পূজার আয়োজন করা হয়। 
খেজুরের ডাল দিয়া নীলপূজার মণ্ডপ ঘিরিয়াছে। চড়কতলার মাঠের মধ্যে কুমির বানিয়ে সন্ন্যাসীরা শ্মশান জাগাইতে যাইবে। একজন মড়া হইবে। তাহাকে বাঁধিয়া নিয়া যাইবে শ্মশানে। তাহাকে আবার বাঁচাইবে। তাহার পর মড়ার মুণ্ডু নিয়া আসিবে, ছড়া বলিতে বলিতে আসিবে, উহার সব মন্তর আছে। ছড়াটি হইল_ 
স্বগগো থেকে এলো রথ, নামল খেতু তলে। 
চব্বিশ কুটি বাণবর্ষা শিবের সঙ্গে চলে। 
সত্যযুগের মড়া আর আওল যুগের মাটি। 
শিব শিব বলরে ভাই ঢাকে দ্যাও কাঠি।' 
বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিখ্যাত 'আম আঁটির ভেঁপু' উপন্যাসে চড়কপূজা ও নীলের গাজনের এই চমৎকার চিত্রটি এভাবেই বর্ণিত হয়েছে। 

সঠিক মূল্য

সকল পণ্য তুলনামূলকভাবে বাজারের সমমূল্যে বা এর চেয়ে কম মূল্যে বিক্রয় করা হয়

ডেলিভারী

বাংলাদেশের যে-কোন প্রান্তে ২-৫ দিনের মধ্যে পণ্য পৌঁছে দেয়া হয়

নিরাপদ পেমেন্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও নিরাপদ পেমেন্ট পদ্ধতি মাধ্যমে পেমেন্টের সুযোগ

২৪/৭ কাস্টমার কেয়ার

সার্বক্ষণিক কেনাকাটার জন্য সার্বক্ষণিক সহায়তা
পণ্যটি সফলভাবে কার্টে যুক্ত হয়েছে     কার্ট দেখুন